ADVERTISEMENT

এবার Youtube Scam হল খোদ আইটি ইঞ্জিনিয়ারের সাথে, খোয়ালেন ৪৯ লক্ষ টাকা

একজন আইটি ইঞ্জিনিয়ার হয়েও কীভাবে তিনি এই সাইবার প্রতারকদের ফাঁদে পা দিলেন সেই নিয়ে উঠছে অনেক প্রশ্ন

ADVERTISEMENT

Youtube Scam : ইদানিং প্রতারণামূলক স্কিমগুলির শিকার হওয়া ব্যক্তিদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে, যার ফলে অনেক টাকা খুইয়েছেন বহু মানুষ। এই স্ক্যামগুলি সাধারণত “পার্ট টাইম চাকরি” দেওয়ার সাথে শুরু হয় যার মধ্যে অর্থ উপার্জনের জন্য YouTube ভিডিওতে লাইক করে অর্থ উপার্জন করার লোভ দেখানো হয়।

ADVERTISEMENT

বিশ্বাস অর্জনের জন্য, স্ক্যামাররা প্রাথমিকভাবে ভিকটিমদের অ্যাকাউন্টে অল্প পরিমাণ টাকা জমা করে, এরপর আরও বেশি টাকা উপার্জনের লোভে আরও বেশি পরিমাণে বিনিয়োগ করতে প্ররোচিত করে। এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে পুনের একজন আইটি ইঞ্জিনিয়ারের সাথে, যাকে তার বিনিয়োগের ৩০% রিটার্নের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল এবং শেষ পর্যন্ত ৪৯ লক্ষ টাকা হারিয়েছেন ঐ মহিলা।

Youtube Scam :  কি ঘটেছিল

পুনের হিঞ্জেওয়াড়ির বাসিন্দা ৩৫ বছরের স্নেহাসিং হৃদয়নারায়ণ সিং হিঞ্জেওয়াড়ি থানায় প্রতারিত হওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন। । Pune Mirror-এর রিপোর্ট অনুসারে, স্ক্যামাররা এই মহিলার কাছে চাকরির অফার নিয়ে এসেছিল যেখানে তাকে ইউটিউব ভিডিওগুলিকে শুধুমাত্র লাইক করতে বলা হয়েছিল। রিপোর্ট অনুসারে, ঘটনাটি ২৮ মার্চ থেকে ২৮ এপ্রিলের মধ্যে ঘটেছিল। ঘটনার দুই মাস পরে হিঞ্জেওয়াড়ি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে, সেই অনুযায়ী আধুরী গাঙ্গুলির (প্রতারক) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে

পুলিশ প্রকাশ করেছে যে, ঐ ব্যাক্তি হোয়াটসঅ্যাপে একটি লোভনীয় চাকরির অফার পেয়েছিলেন যেটিতে ইউটিউব ভিডিও লাইক করে অতিরিক্ত অর্থ আয়ের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। ঐ মহিলা স্ক্যামার দ্বারা নির্ধারিত কাজগুলি সম্পূর্ণ করে ১৫০ এবং ৩৫০ টাকা পেমেন্ট পেয়েছেন। এরপর প্রতারককে বিশ্বাস করতে শুরু করলে, ঘটনাটি একটি বড় মোড় নেয় এবং মহিলাকে আরও কাজের জন্য কিছু অর্থ বিনিয়োগ করতে বলা হয়। প্রতারকটি ভিকটিমকে বিনিয়োগের পরিমাণের ৩০% ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। মহিলা তখন ৩০% রিটার্নের আশায় মোট ৪৯ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন কিন্তু পরিবর্তে কোন টাকায় ফেরত আসেনি।

এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে এপিআই অনিল লোহার জানান, “সাইবার প্রতারকরা প্রতি মুহূর্তে তাদের পদ্ধতি আপডেট ও পরিবর্তন করে চলেছে। অনলাইনে লেনদেন করার সময় লোকেদের সতর্ক হওয়া উচিত এবং অজানা বা সন্দেহজনক লিঙ্কে ক্লিক না করা উচিত। আপনার ব্যাঙ্কের বিবরণ বা ওটিপি কারও সাথে শেয়ার করবেন না। সেখানে অনেক ক্ষেত্রে যেখানে অর্থ উপার্জনের জন্য অনলাইন কাজগুলি করতে বলে প্রতারণার ঘটনা ঘটে, লোকেদের এই জাতীয় স্কিমগুলিতে বিশ্বাস করা উচিত নয়”।

আরো পড়ুন