ADVERTISEMENT

মিলল বড়সড় আপডেট, টেলিকম জগতে বিপ্লব ঘটাতে হাজির Bharat 6G Alliance

5G লঞ্চের এক বছর হতে না হতেই 6G লঞ্চ নিয়ে বড় ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় ইলেকট্রনিক্স ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব।

ADVERTISEMENT

Bharat 6G Alliance: ভারতে 5G নেটওয়ার্ক এখনও পর্যন্ত সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়েনি। এরই মধ্যে  6G নিয়ে ঘোষণা করা হয়েছে। দেশে 6G নেটওয়ার্ক পরিষেবা বিকাশের জন্য ‘Bharat 6G Alliance’ নামে একটি সংস্থার নাম জানানো হয়েছে। দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় টেলিকম ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব এ কথা ঘোষণা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বছরের অক্টোবর মাসে 5G পরিষেবা চালু করেছিলেন, তবে এখন ভারতে 6G আনার প্রস্তুতি জোরদার হয়েছে।

ADVERTISEMENT

Bharat 6G Alliance আসলে কি?

6G অ্যালায়েন্স হল পাবলিক সেক্টর, প্রাইভেট সেক্টর এবং অন্যান্য বিভাগের একটি জোট। এতে সবাই 6G কে এগিয়ে নিয়ে যেতে একসঙ্গে কাজ করবে। 6G প্রযুক্তিকে 5G নেটওয়ার্ক পরিষেবার একটি নতুন সংস্করণ হিসাবে দেখা হচ্ছে। 

5G-এর তুলনায় 6G প্রায় 100 গুণ দ্রুত গতি প্রদান করে যোগাযোগে বিপ্লব ঘটাবে এমনটাই আশা করা হচ্ছে। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে এক দশকের মধ্যেই ভারতে আসতে চলেছে 6G পরিষেবা, অর্থাৎ ২০৩০ সালের মধ্যেই ভারতে আসতে চলেছে 6G পরিষেবা। 

6G প্রযুক্তির উন্নয়নে সহায়তা করার জন্য, সরকার টেলিকম প্রযুক্তি উন্নয়ন তহবিলের (TTDF) মাধ্যমে ২৪০.৫১ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। যা অরবিটাল অ্যাঙ্গুলার মোমেন্টাম (OAM) এবং মাল্টিপ্লেক্সিং, অ্যাডভান্সড অপটিক্যাল কমিউনিকেশন টেস্টবেড সহ 6G THz টেস্টবেড নামে দুটি প্রকল্পের জন্য ব্যবহার করা হবে।

ভারত Bharat 6G Alliance-এর সাথে পরবর্তী প্রজন্মের টেলিকমিউনিকেশন কে কাজে লাগিয়ে বিশ্বব্যাপী প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুত। আশা করা যাচ্ছে কেন্দ্রের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী, ২০৩০ সালের মধ্যেই ভারতে চালু হবে 6G পরিষেবা।

আরো পড়ুন