Tesla Manufacturing in India : এবার ভারতেই তৈরি হবে টেসলা ইলেক্ট্রিক কার

হয়তো চলতি বছরের শেষ দিকেই কিংবা পরের বছরের প্রথম দিকে ভারতে শুরু হতে পারে টেসলা ইলেক্ট্রিক কারের ফ্যাক্টরি (Tesla Manufacturing in India)

Tesla Manufacturing in India : মঙ্গলবার ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সিইও কাউন্সিল’ সম্মেলনে টেসলা কোম্পানির সিইও ইলন মাস্ক (Elon Musk) জানিয়েছেন এই বছরের শেষ দিকে টেসলা (Tesla) গ্লোবাল স্যুট কারখানায় একটি নতুন সংযোজন ঘোষণা করতে পারে। তবে এইদিন ভবিষ্যতের কারখানা কোথায় তৈরি হতে পারে তার কোনরূপ ইঙ্গিত দেননি, তবে মডারেটরের সাথে একমত হয়েছেন যে, ‘ভারত (India) অবশ্যই একটি আকর্ষণীয় স্থান হতে পারে ভবিষ্যতের কারখানা তৈরির ক্ষেত্রে’। তবে টেসলা তাৎক্ষণিকভাবে কোন মন্তব্যের স্পষ্ট জবাব দেয়নি কিন্তু সন্মেলনে পরে স্পষ্ট জানিয়েছে যে সংস্থাটি “বর্তমানে নতুন ভাবে কোন কারখানা করার কথা ভাবছে না।”

টেসলার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কয়েকটি তথাকথিত গিগা কারখানা রয়েছে এবং দুটি কারখানা দেশের বাইরেও রয়েছে যেগুলি যথাক্রমে বার্লিন এবং সাংহাইয়ের কাছে অবস্থিত। ইলেক্ট্রিক ভিকেল নির্মাণকারী সংস্থাটি এই বছরের শুরুতে প্রকাশ করেছে যে, তারা ২০২৪ সালের প্রোডাক্ট উৎপাদন শুরু করার সাথে সাথেই মেক্সিকোর মন্টেরেতে (Monterry) একটি কারখানাও তৈরি করবে।

Tesla Manufacturing in India : ভারতে এতদিন টেসলা ফ্যাক্টরি হয়নি কেন

টেসলা ২০২১ সালের গোড়ার দিকে ভারতে দুটি স্থানীয় সহায়ক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিল, কিন্তু ভারতীয় বাজারে প্রবেশের জন্য মাস্কের প্রচেষ্টা বাধা পায় ভারতে বৈদ্যুতিক গাড়ির উপর উচ্চ আমদানি শুল্কের জন্য, যা প্রায় ১০০% এর কাছাকাছি। ভারত মাস্ক কে জানিয়েছিল যে, ট্যাক্স কমানোর আবেদনের পরিবর্তে টেসলা যেন ভারতেই গাড়ি তৈরি করে বা কমপক্ষে ভারতে এসেম্বেল করে, সেক্ষেত্রে টেসলা যুক্তি দিয়েছিল যে ভারতকে প্রথমে কর কমানো উচিত যাতে কোম্পানিটি উৎপাদনে যাওয়ার আগে আমদানি করা গাড়ির চাহিদা ভারতের বাজারে কিরকম সে ব্যাপারে পরীক্ষা করতে পারে।

Tesla Manufacturing in India : ভারতে টেসলা ফ্যাক্টরি হওয়ার সম্ভাবনা কতটা

Reuters নামক একটি সংবাদ সংস্থা তাদের গত সপ্তাহের একটি রিপোর্টে জানাই যে, টেসলার কিছু কর্মকর্তারা এদিন ভারতে এসেছিলেন, তারা ভারতে দেশীয় এবং রপ্তানি উভয় বাজারের জন্য দেশে ইভি তৈরির জন্য একটি কারখানা স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছেন। ভারতের উপ-প্রযুক্তি মন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর পরে Reuters-কে বলেন, টেসলা “ভারতকে একটি প্রোডাকশন এবং ইনভেশন -এর ভিত্তি হিসেবে অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে দেখছে”। চন্দ্রশেখর পরামর্শ দিয়েছেন যে, ‘ভারত হচ্ছে এমন একটি দেশ যা ভবিষ্যতে একটি নতুন নতুন কারখানার আবাসস্থল হতে যাচ্ছে, সুতরাং টেসলা এখানে কেবল গাড়ি তৈরির কারখানার চেয়ে অন্য বিষয়েও বেশি আগ্রহী হতে পারে’।

আরো পড়ুন