Online Earning Websites: অনলাইন থেকে ইনকাম করার সেরা ৫ টি ওয়েবসাইট

বিনা পুঁজিতে ঘরে বসে রোজকার করার পদ্ধতি গুলি দেখে নেওয়া যাক এক নজরে।

Online Earning Websites: বর্তমানে প্রযুক্তির যুগে মানুষ সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর থেকে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগের মুহূর্ত পর্যন্ত প্রযুক্তির উপরে নির্ভরশীল। বাড়িতে বসে মাত্র কয়েক ঘণ্টা কাজ করে মোটা টাকা আয় করা খুব সহজ বিষয়, আসলে ব্যাপারটা হল ওয়ার্ক-ফ্রম-হোম (Work From Home)। অনলাইনে এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে (Online Earning Websites), যা কাজে লাগিয়ে বিনা পুঁজিতে ঘরে বসে রোজকার করার পথ উন্মোচন করে। যদি আপনার মধ্যে সামান্য ক্রিয়েটিভিটি থাকে, তাহলে আপনি আপনার ক্রিয়েটিভিটি ব্যাবহার করে লাখ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন।

এদানিং বাড়িতে বসে কাজ করার মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের প্রথা বেশ ট্রেন্ডিং হয়ে উঠেছে। কারণ এক্ষেত্রে সারা দিনে যে কোনও সময় কাজ করা যায় ফলে পরিবার বা অন্যান্য কাজের জন্য সমান ভাবে সময় বের করার সুযোগও পাওয়া যায়। তবে আপনিও কি ঠিক এই পথ বেছে নিতে চাইছেন? কিন্তু জানেন না কীভাবে বা কোথায় গেলে কাজের সন্ধান পাবেন? চিন্তা করবেন না। আজ আমরা এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আলোচনা করবো, অনলাইনে অর্থোপার্জনের জন্য আদর্শ তথা বৈধ কয়েকটি ওয়েবসাইট (Online Make Money Websites) সম্পর্কে। 

Online Earning Websites গুলি কি কি ?

১. চেগ ইন্ডিয়া (Chegg India): চেগ ইন্ডিয়া হল ছাত্রছাত্রীদের জন্য বা যে কোনও বিষয়ে কমপক্ষে স্নাতক ডিগ্রি এবং ভাল দক্ষতা রয়েছে তাদের জন্য সবচেয়ে উপকারী অনলাইন উপার্জনের সাইটগুলির মধ্যে একটি। আপনি যে কোনও জায়গা থেকে, যে কোন সময় কাজ করতে পারেন। এই ওয়েবসাইটে সঠিক উত্তর প্রদান করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এর জন্য প্রয়োজন ইন্টারনেট এবং একটি মোবাইল ফোন। 

২. আপওয়ার্ক (Upwork) : আপওয়ার্ক একটি বিশ্বস্ত ফ্রিল্যান্সিং অনলাইন উপার্জনের (Online Earning) ওয়েবসাইট যা লাখ লাখ ব্যবহারকারী দ্বারা ব্যবহৃত হয়। একজন ফ্রিল্যান্সার এর কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল ক্লায়েন্ট খুঁজে বের করা। আপওয়ার্ক এর মত প্লাটফর্ম ক্লায়েন্ট এবং ফ্রিল্যান্সার উভয়ের জন্যই একে অপরকে খুঁজে পাওয়ার ব্যাপারটা সহজ করে দেয়। এক্ষেত্রে আপনি যদি – ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইনিং, লেখালিখি বা অন্য কোনো ক্ষেত্রে পারদর্শী হন তবে এখানে একাধিক কাজ খুঁজে পাবেন এই ওয়েবসাইটে।

৩. অ্যামাজন কেডিপি (Amazon KDP) : এটি মূলত অ্যামাজনের একটি সেল্ফ পাবলিশিং প্ল্যাটফর্ম যার মাধ্যমে লেখকেরা তাদের বই একটি বিশাল পাঠকশ্রেণির কাছে বিক্রি করার সুযোগ পান। এতে বই পাবলিশ করার প্রথাগত পদ্ধতির ধকল এড়ানো যায়। অ্যামাজন কেডিপি-এর মাধ্যমে আপনি কোন মূলধন ছাড়াই আপনার ইবুক পাবলিশ করতে পারবেন পাশাপাশি বই বিক্রি হলে প্রত্যেক ইউনিট পিছু টাকাও উপার্জন করতে পারবেন। 

৪. মাইপিক (miPic): miPic হল একটি অনলাইন আয়ের প্ল্যাটফর্ম যা শিল্পপ্রেমীদের আর্ট, ফটোগ্রাফারদের ছবি প্রিন্ট, কিনতে ও বিক্রি করতে দেয়। এর মধ্যে রয়েছে এইচডি ছবি এবং প্রিন্ট যা ব্যবহার করা হবে ফটো প্রিন্ট, ক্যানভাস আর্ট, টি-শার্ট প্রিন্টিং, এমনকি আপনার বালিশের ওয়ালপেপার। আপনি যদি একজন ভাল ফতগ্রাফার হন তাহলে আপনার জন্য খুব সুযোগ, কারণ আপনি আপনার ছবি বিক্রি করতে পারেন এবং ২০ শতাংশের বেশি কমিশন উপার্জন করতে পারেন। 

৫. রেসপন্ডেন্ট (Respondent) : রেসপন্ডেন্ট হল এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যা ইউজারদের কোনো একটি বিষয় সম্পর্কে তাদের জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্য অর্থ প্রদান করে। সর্বোপরি অন্যান্য অনুরূপ ওয়েবসাইটগুলি এই ধরণের কাজের জন্য যেখানে সামান্য টাকা অফার করে, সেখানেই আলোচ্য প্ল্যাটফর্মটি অংশগ্রহণকারীদের প্রতি ঘন্টায় অবিশ্বাস্য ৮২৫০ টাকা থেকে ৫৯,৮০০ টাকা পর্যন্ত অর্থ প্রদান করে। এই ওয়েবসাইটের অধীনে কাজ করার জন্য, আপনাকে প্রথমেই একটি সক্রিয় ইমেল ব্যবহার করে সাইন আপ করতে হবে এবং আপনার দক্ষতা ও আগ্রহ বিষয়ক তথ্য পার্সোনালাইজ করতে হবে। এরপরই আপনাকে প্রজেক্ট দেওয়া হবে।

আরো পড়ুন