Second Hand iPhone: সেকেন্ড হ্যান্ড iphone কেনার আগে এই তিনটি জিনিস মাথায় রাখবেন

সেকেন্ড হ্যান্ড iphone কেনার আগে এই বিষয়গুলি ভুললেই কিন্তু ঠোকে যেতে পারেন।

Second Hand iPhone Buying Tips 2023: বর্তমানে আইফোন ব্যবহার করা একটি ট্রেন্ডিং ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকেরই ইচ্ছা থাকলেও কেনার উপায় থাকে না আইফোন। কারণ আইফোনের দাম যে আকাশ ছোঁয়া। সেক্ষেত্রে বিকল্প হিসেবে আমরা Second Hand iPhone ক্রয় করে আমাদের সখ পূরণ করি। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে মার্কেটে এখন ছড়িয়ে পড়েছে ডুব্লিকেট আইফোন। 

তাহলে অরিজিনাল আইফোন চেনার উপায় কি? চিন্তা করবেন না আমরা আপনাদেরকে বলবো। সেকেন্ড হ্যান্ড iphone কেনার আগে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর নজর রাখতে হবে। আসুন দেখেনি এই তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কি কি।

Second Hand iPhone কেনার সহজ পদ্ধতি

সেকেন্ড হ্যান্ড iphone কেনার ক্ষেত্রে যে তিনটি বিষয়ে আপনাকে নজর রাখতে হবে সেগুলি হল- সিরিয়াল নাম্বার, ব্যাটারি হেলথ এবং রিপ্লেসমেন্ট।

সিরিয়াল নাম্বার: সিরিয়াল নম্বর চেক করে আপনি অনায়াসে বুঝতে পারবেন আপনার সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোনটি  আসল না নকল। সিরিয়াল নম্বর চেক করার পদ্ধতি গুলি দেখে নিন।

  •  প্রথমেই আপনার সেটিং অপশনে গিয়ে জেনারেল অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  •  তারপর অ্যাবাউট সেকশন থেকে আপনার ফোনে সিরিয়াল নম্বরটি কপি করে নিতে হবে।
  •  এরপর আইফোনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করুন।
  •  ওপেন করার পর আপনার কপি করা সিরিয়াল নম্বরটি পেস্ট করুন এবং ক্যাপচা কোড ফিলাপ করে সাবমিট করে দিন।
  •  সাবমিট করার পর আপনি দেখতে পাবেন, আপনার সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোনের যাবতীয় তথ্য।

ব্যাটারি হেলথ: সেকেন্ড হ্যান্ড iphone কেনার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল ব্যাটারি হেলথ। কি করে চেক করবেন ব্যাটারী হেলথ দেখে নিন।

  • প্রথমে আপনার আইফোনের সেটিং অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • এরপর ব্যাটারি অপশনে ক্লিক করুন এবং ব্যাটারি হেলথ অপশনে যান।
  • তারপর আইফোনটির হেলথ পার্সেন্টেজ  চেক করে নিন।
  •  এক্ষেত্রে হেলথ পার্সেন্টেজ যদি ৮০ নিচে থাকে, তাহলে সেই iphone কখনই কেনা উচিত নয়।

রিপ্লেসমেন্ট: সেকেন্ড হ্যান্ড iphone-এ কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে নাকি কি করে বুঝবেন?

  • প্রথমে আপনার আইফোনের সেটিং অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • এরপর অ্যাবাউট অপশনে ক্লিক করার পর, জেনারেল অপশনে ক্লিক করুন।
  • জেনারেল সেকশনে আপনার মডেল নাম্বার চেক করুন। 

এক্ষেত্রে মনে রাখবেন, মডেল নাম্বারটি যদি M দিয়ে শুরু হয় তাহলে বুঝতে হবে আইফোনটি একদম নতুন। মডেল নাম্বারটি যদি F দিয়ে শুরু হয়, তাহলে অবশ্যই বুঝে নিতে হবে এটি একটি রিফারবিসড্‌ অর্থাৎ নির্মাণকারী সংস্থার দ্বারা দ্বিতীয় বার এটিকে বিক্রয় করা হচ্ছে। মডেল নাম্বারটি যদি N দিয়ে শুরু হয়, তাহলে বুঝতে হবে আইফোনটির পার্টস (যেমন- ব্যাটারি বা স্ক্রীন) পরিবর্তন করা হয়েছে।

আরো পড়ুন