MS Dhoni মোবাইলে কি গেম খেলছেন ? মুহূর্তেই ভাইরাল গেম, 3 ঘন্টায় ৩৬ লক্ষ ডাউনলোড

এমএস ধোনির Candy Crush খেলার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। আসলে কি ঘটে ছিল?

MS Dhoni Playing Candy Crush: ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা চেন্নাই সুপার কিংস-এর অধিনায়ক এমএস ধোনির (MS Dhoni) একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যাতে একজন এয়ার হোস্টেসকে ফ্লাইটের ভিতরে তাকে চকোলেট অফার করতে দেখা যায়। এয়ার হোস্টেস কিংবদন্তি ক্রিকেটারকে খেজুর এবং চকোলেট ভর্তি প্লেট অফার করলে, তিনি ওমানি খেজুরের প্যাকেট নিয়ে বাকি ফিরিয়ে নিতে বলেন। 

এই পুরো ঘটনাটি যখন ঘটছিল, তখন মাহির আইপ্যাডটির স্ক্রীন দেখা যায়,যেখানে তিনি Candy Crush খেলছিলেন। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে এই গেমটি সোশ্যাল মিডিয়া এবং ইন্টারনেটে ট্রেন্ডিং হতে শুরু করে। যাইহোক, ধোনি ক্যান্ডি ক্রাশ খেলার মাধ্যমে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল, যা শেষ পর্যন্ত মাত্র তিন ঘন্টার মধ্যে গেমিং অ্যাপ্লিকেশনটি ৩৬ লাখ ইউজার ডাউনলোড করেছেন।

MS Dhoni-র ভাইরাল ভিডিও

ভাইরাল ভিডিওতে, এমএস ধোনি (MS Dhoni) তার স্ত্রী সাক্ষী ধোনিকে রবিবার একটি ইন্ডিগো ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে দেখা গেছে। সংক্ষিপ্ত ভিডিও ক্লিপটিতে তার ভক্তরা তাকে সরলতার জন্য প্রশংসা করেছে, কারণ তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত তারকা হওয়া সত্ত্বেও ফ্লাইটের ইকোনমি ক্লাসে বসে থাকতে দেখা গেছে। 

এমএস ধোনির ক্যান্ডি ক্রাশ খেলা (MS Dhoni Playing Candy Crush)-র ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে এই গেম ইন্টারনেটে ট্রেন্ডিং হতে শুরু করে এবং মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে গেমটি ৩.৬ মিলিয়ন বা ৩৬ লাখ নতুন ব্যবহারকারী যুক্ত হয়েছে। এর পরই Candy Crush গেমিং সংস্থার পক্ষ থেকে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ধন্যবাদ। গেম প্রস্তুতকারী সংস্থাটি টুইটার হ্যান্ডেলে এই সম্পর্কিত একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন, যেখানে লেখা আছে আমরা শুধু আপনার কারণে ভারতে ট্রেন্ড করছি (#Candycrush #MSDhoni টিম ক্যান্ডি ক্রাশ সাগা)।

তাহলে সত্যি কি Candy Crush মাত্র 3 ঘন্টায় ৩৬ লক্ষ ডাউনলোড হয়েছে? তবে জানিয়ে রাখি, এই টুইটার অ্যাকাউন্টটি ক্যান্ডি ক্রাশের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট নয়। গেম সংস্থার তরফ থেকে এরকম কোনও টুইট করা হয়নি। কিন্তু তা সত্তেও এই গেম এখন যথেষ্ট ভাইরাল হয়েছে। আরও জানা যাচ্ছে,  এমএস ধোনি ক্রিকেটের পাশাপাশি গেম খেলতেও পছন্দ করেন।

আরো পড়ুন