ADVERTISEMENT

Hop Electric Bike : এক ধাক্কায় বিশাল দাম কমানোর ঘোষণা এই ইলেক্ট্রিক বাইকের

ফেম-২ প্রকল্পে ভর্তুকির পরিমাণ কমে যাওয়া সত্ত্বেও বিশাল দাম কমানোর ঘোষণা এই ইলেক্ট্রিক বাইকের

ADVERTISEMENT

ক্রেতাদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ধরিয়ে জুন থেকে দেশজুড়ে সমস্ত ইলেকট্রিক টু-হুইলারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। ইতিমধ্যেই Ola Electric, Ather Energy, TVS-এর মতো কোম্পানিগুলি তাদের ইভি মডেলের মূল্যবৃদ্ধির খবর শুনিয়েছে। এবারে সেই পথেই হাঁটলো জয়পুরের বৈদ্যুতিক দু-চাকা গাড়ির স্টার্টআপ হপ ইলেকট্রিক (Hop Electric)। আসলে সম্প্রতি ফেম-২ প্রকল্পে ভর্তুকির পরিমাণ কমিয়েছে কেন্দ্র, যে কারণে এই দর বৃদ্ধির পালা লেগেছে ভারত জুড়ে।

ADVERTISEMENT

HOP Electric Bike : দাম পরিবর্তন হয়ে কত দাঁড়ালো এই ইভির দাম

বর্তমানে হপের (Hop) ঝুলিতে রয়েছে দুটি ইলেকট্রিক স্কুটার (Leo ও Lyf) এবং একটি ই-বাইক (Oxo)। Hop Leo উচ্চ এবং ধীর – উভয় গতির ভ্যারিয়েন্টেই উপলব্ধ রয়েছে। এই দুই ভ্যারিয়েন্টের দামেই পরিবর্তন ঘটানো হয়েছে। Leo-এর হাই-স্পিড এবং লো-স্পিড ভার্সনের দাম বেড়ে নতুন মূল্য হয়েছে যথাক্রমে ৯৭,৫০০ টাকা ও ৮৪,০০০ টাকা (এক্স-শোরুম)।

তবে কোম্পানির ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল Oxo-এর ক্ষেত্রে ঠিক এর উল্টোটা ঘটতে দেখা গেছে। মূল্য বৃদ্ধির বদলে তা অনেকটাই কমানো হয়েছে। আগে যেখানে ই-বাইকটি ১,৬৫,০০০ টাকায় বিক্রি করা হতো, সেখানে এখন কিনতে খরচ পড়বে ১,৪৮,০০০ টাকা। Hop Oxo দুই ভ্যারিয়েন্টে উপলব্ধ – Oxo এবং Oxo Prime।

HOP Electric Bike : রেঞ্জ, স্পীড ও কালার

Oxo Prime-এর সর্বোচ্চ গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় ৮২ কিলোমিটার এবং ফুল চার্জে ইকো এবং পাওয়ার মোডে ১২০ কিলোমিটার রেঞ্জ প্রদান করে। যেখানে স্পোর্টস মোডে চলে ৬০ কিলোমিটার। আবার জল্পনা চলছে ৯৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় সর্বোচ্চ গতিবেগ এবং ১৫০ কিলোমিটার রেঞ্জ সহ আসতে চলেছে আরেকটি মডেল Oxo-X। বাইকটির পাঁচটি কালার অপশন রয়েছে যথা – ট্রু ব্ল্যাক, টুইলাইট গ্রে, ইলেকট্রিক ইয়ালো, ম্যাগনেটিক ব্লু এবং ক্যান্ডি রেড। এতে উপস্থিত ৩.৭৫ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক এবং ৫.২ কিলোওয়াট ইলেকট্রিক মোটর।

আরো পড়ুন